কেমন লেন্স চাই

Photo by Mengliu Di on Pexels.com

ক্যামেরার সাথে যদি লেন্সের সঠিক ব্যবহার করা যায় তাহলে ছবি হয়ে উঠবে ছবির মতো। বিষয়বস্তু যখন ফোকাস হয়, তখন লেন্স এবং ইমেজ সেন্সরের মাঝখানের দূরত্বকে লেন্সের ফোকাল লেন্থ বলে। এই দূরত্বকে সাধারণত মিলিমিটারে (মিমি) মাপা হয়। যেমন একটি জুম লেন্সের বেলায় সর্বোচ্চ ও সর্বনিম্ন ফোকাল লেন্থ ১৮-৫৫ মিমি। যদিও এই ফোকাল লেন্থের লেন্সটি ডিএসএলআর ক্যামেরার সঙ্গে কিট হিসেবে পাওয়া যায়। ডিএসএলআর (ডিজিটাল সিঙ্গেল লেন্স রিফ্লেক্ট) ক্যামেরায় কাজের ধরণ অনুযায়ী নানা ধরনের ফোকাল লেন্থের লেন্স ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আপনারা যারা ফটোগ্রাফি করতে চাইছেন কিন্তু জানা নেই কোন লেন্সের ব্যবহার কেমন তাদের জন্য রইলো কিছু ধারণা।

প্রতিদিনের ছবি তুলতে ২৪-৭০ মিমি বা ১৮-৫৫ মিমি জাতীয় স্ট্যান্ডার্ড জুম লেন্স ব্যবহার করা যেতে পারে। প্রতিকৃতি ফটোগ্রাফির জন্য, ৩৫ মিমি, ৫০ মিমি বা ৮৫ মিমিতে একটি প্রাইম লেন্স (জুম করে না এমন একটি) বেছে নিন। আপনি যদি ঐতিহাসিক স্থানে ঘুরতে গিয়ে প্রত্নতাত্ত্বিক বা স্থাপত্য নিদর্শনের ছবি তুলতে চান তবে আপনার লাগবে ফিশ আই লেন্স। ফিশ আই লেন্স দিয়ে যেকোনো সাধারণ একটি বস্তুকে খুব সহজে অতিকায় দানবের মতো দেখানো যায়। কেউ যদি ছবি তোলাকে প্রফেশন করতে চান তবে আপনার প্রয়োজন হবে  ইএফ ১৬-৩৫ মিমি লেন্স যাকে বলা হয় ওয়াইড অ্যাঙ্গেল জুম বা ওয়াইড টু ওয়াইড লেন্স। এর অ্যাপারচার হচ্ছে এফ/৪। ৩৫ মিমি ফোকাল লেন্থের লেন্সকে বলে মিড ওয়াইড প্রাইম লেন্স। মূলত প্রামাণ্য ছবি তুলতে এই লেন্স ব্যবহার করা হয়। পোর্ট্রেট তোলার জন্য বেশি ব্যবহার হয় ৫০ মিমি ফোকাল লেন্থের লেন্স। যাকে প্রাইম লেন্স বলে। এই লেন্সের তিন ধরনের অ্যাপারচার নম্বর হয়। যেমন এফ/১.২, এফ/১.৪ এবং এফ/১.৮। বলা হয়ে থাকে, মানুষের সাধারণ দৃষ্টিসীমা ৫০ মিমির কাছাকাছি। যার জন্য ৫০ মিমি প্রাইম লেন্সের ছবি খুব বেশি জীবন্ত মনে হয়। শুধু তা–ই নয়, এই লেন্স শিক্ষানবিশ আলোকচিত্রীদের জন্যও একটি আদর্শ লেন্স। আপনি যদি ক্ষুদ্র পতঙ্গ, সুক্ষ্ণ কোন বিষয়, প্রজাপতি বা ফড়িংয়ের ডানার সূক্ষ্ম কারুকাজের ছবি বা ফুড ফটোগ্রাফি করতে চান তবে আপনার চাই ৫০ মিমি, ৮৫ মিমি, ১০০ মিমি, ১০৫ মিমি ও ১৩৫ মিমি ফোকাল লেন্থের ম্যাক্রো লেন্স। পোর্ট্রেট, ফ্যাশন, গ্ল্যামার ইত্যাদি বিষয়ের ছবি তোলার জন্য ২০০-৩০০ মিমি টেলিফটো লেন্সগুলো ব্যবহৃত হয়। সুপার টেলিফটো ৪০০-৮০০ মিমি লেন্সগুলো ব্যবহৃত হয় মূলত স্পোর্টস, পাখি, অনুসন্ধানমূলক সাংবাদিকতা ইত্যাদি বিষয়ের ছবি তোলার জন্য।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s